ফেসবুক প্রফেশনাল মোড কিভাবে কাজ করে

ব্যক্তিগত প্রোফাইলের জন্য প্রফেশনাল মোড ফিচার চালু করেছে ফেসবুক। এই পরীক্ষামূলক বৈশিষ্ট্যের মাধ্যমে, যোগ্য নির্মাতারা ফেসবুক পেজ তৈরি না করেই ফেসবুক থেকে অর্থ উপার্জন করতে সক্ষম হবেন। এটি ফেসবুকের মূল কোম্পানি মেটা-এর ১ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের অংশ যা নির্মাতাদের জন্য। ফেসবুকের পাশাপাশি ইনস্টাগ্রামের প্রভাবশালীরাও এই বোনাস পেতে চলেছেন।
ফেসবুক প্রফেশনাল মোড কিভাবে কাজ করে
ফেসবুক প্রফেশনাল মোড কিভাবে কাজ করে

ফেসবুক proffessional mode আসলে কি?

ফেসবুক প্রোফাইলে নতুন সংযোজন হল প্রফেশনাল মোড। মূলত এই প্রফেশনাল মোড ব্যবহার করে আপনি আপনার Facebook অ্যাকাউন্ট অর্থাৎ ব্যক্তিগত প্রোফাইল থেকে আলাদা কোনো Facebook পেজ তৈরি না করেই অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। পেশাদার মোড নির্মাতাদের জন্য বোনাসগুলি নির্মাতাদের জন্য তৈরি একটি পৃথক তহবিল দ্বারা দেওয়া হবে।
ফেসবুক প্রফেশনাল মোড চালু করলে দেখবেন কোন প্রোফাইলে কতজন পোস্ট দেখলেন, কোন ধরনের পোস্টে বেশি এনগেজমেন্ট হচ্ছে। আপনি পেশাদার প্রোফাইলে ফেসবুক পেজে উপলব্ধ বিভিন্ন বিশ্লেষণী ডেটার মতো একই তথ্য পাবেন।

ফেসবুক প্রফেশনাল মোড কিভাবে কাজ করে?

প্রফেশনাল মোড Facebook প্রোফাইলের জন্য একটি নতুন বৈশিষ্ট্য। ফেসবুক প্রোফাইলের প্রফেশনাল মোড ফিচারের উদ্দেশ্য হল ক্রিয়েটরদের গুরুত্ব দিয়ে আয়ের পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ ইনসাইট প্রদান করা। এই তথ্যগুলি আপনাকে আপনার সম্প্রদায়কে আরও ভালভাবে বুঝতে সাহায্য করবে৷ যোগ্য নির্মাতারা পেশাদার মোডের মাধ্যমে রাজস্ব পেতে পারেন এবং তাদের দর্শক বাড়াতে হলে শক্তিশালী সরঞ্জাম ব্যবহার করতে পারেন।

পেশাদার মোডের মাধ্যমে Facebook প্রোফাইলের আয়ের একটি প্রধান উৎস হল রিলস প্লে বোনাস প্রোগ্রাম। রিল ছোট ভিডিও, অনেকটা টিক ভিডিওর মত। ফেসবুক টিক মার্কেট ক্যাপচার করতে Reals বৈশিষ্ট্য চালু করেছে। এখন ফেসবুক ব্যবহারকারীদের রিল তৈরিতে উৎসাহিত করার জন্য রিল তৈরির জন্য বোনাস ঘোষণা করেছেন।

রিলস প্লে বোনাস প্রোগ্রামের অধীনে নির্মাতারা তাদের মাসিক ভিউয়ের উপর নির্ভর করে 35,000 মার্কিন ডলার পর্যন্ত উপার্জন করতে পারেন। Reels বৈশিষ্ট্য এখনও সব দেশে উপলব্ধ নয়. ফলস্বরূপ, Facebook প্রোফাইলগুলির জন্য পেশাদার মোড বৈশিষ্ট্যটি সরানো হলেও, Reels Play প্রোগ্রামের মাধ্যমে রাজস্ব স্ট্রীম তৈরি হতে কিছুটা সময় লাগতে পারে।

ফেসবুক প্রফেশনাল মোড থেকে আয়

প্রোফাইলের জন্য এই প্রফেশনাল মোড এর মাধ্যমে কি ধরনের আয় সম্ভব, এটি নিয়ে অনেকের মনে শঙ্কা থাকতে পারে। ফেসবুক জানিয়েছে যোগ্য ক্রিয়েটরগণ তাদের সিলেক্টেড রিলসের মাসিক ভিউস এর উপর নির্ভর করে মাসিক সর্বোচ্চ ৩৫,০০০ মার্কিন ডলার পর্যন্ত আয় করতে পারবেন। এটি প্রফেশনাল মোডের আয়ের প্রধান উৎস হতে চলেছে। তবে এই “Reels Play” প্রোগ্রামে অংশগ্রণ করতে ফেসবুকের তরফ থেকে ইনভাইট পেতে হবে।

পেজ ও প্রফেশনাল প্রোফাইলের মধ্যে পার্থক্য কি?

ফেসবুক পেজ কিভাবে কাজ করে তা প্রায় সবাই জানে। ফেসবুক পেজ সাধারণ প্রোফাইল থেকে ভিন্ন। একটি ফেসবুক প্রোফাইল ব্যবহার করে একাধিক পেজ খোলা সম্ভব। যাইহোক, অনেকে তাদের প্রোফাইলটিকে একটি পেজ হিসাবে ব্যবহার করতে চান। প্রোফাইলের জন্য পেশাদার মোড এই সমস্যার সমাধান করতে যাচ্ছে।

প্রোফাইলের জন্য পেশাদার মোড ব্যবহার করে সাধারণভাবে পোস্ট করার পাশাপাশি, পেজ এবং দর্শক এবং প্রোফাইল সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ পরিসংখ্যানের মতো উন্নত পোস্ট বৈশিষ্ট্য রয়েছে। মূলত, ফেসবুক পেজের সব ফিচার যুক্ত হতে যাচ্ছে ফেসবুকের পেশাদার প্রোফাইলে। উদাহরণস্বরূপ, একটি পোস্টে মোট প্রতিক্রিয়া, মন্তব্য এবং শেয়ারের পাশাপাশি ফলোয়ারের বৃদ্ধি এবং পর্যালোচনা সময়ের সাথে সাথে করা যেতে পারে।

অন্য কথায়, পেজ এবং পেশাদার প্রোফাইলের মধ্যে কোন পার্থক্য নেই। Facebook প্রোফাইলের জন্য পেশাদার মোড চালু করার পরে, যে কেউ প্রোফাইল অনুসরণ করতে পারে এবং তাদের ফিডে সর্বজনীন সামগ্রী দেখতে পারে। তবে মজার ব্যাপার হল প্রোফাইলের জন্য প্রফেশনাল মোড চালু করার পরেও পোস্টের গোপনীয়তা আগের মতোই পাবলিক বা প্রাইভেট রাখা যাবে। যেখানে ফেসবুক পেজ থেকে কোনো পোস্ট ব্যক্তিগত রাখা সম্ভব নয়।

একজন ব্যক্তির নামে একটি পৃথক প্রোফাইল বা পেজ পরিচালনা করার প্রয়োজন নেই। ব্যক্তিগত পোস্টগুলি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করা যায় এবং সমস্ত অনুসরণকারীদের জন্য সর্বজনীন পোস্টগুলি। এর মানে হল যে পেশাদার মোড চালু করার পরেও ব্যবহারকারীর সামগ্রীর গোপনীয়তার উপর সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ থাকবে।

এই নতুন মোডটি বর্তমানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে শুধুমাত্র কয়েকটি ফেসবুক প্রোফাইলে পরীক্ষা করা হচ্ছে। ফেসবুকের ভাষ্যমতে, ইতিমধ্যেই চালানো এই পরীক্ষার ফলাফল অনেকটা আশানুরূপ। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে, মেটা সমস্ত Facebook ব্যবহারকারীদের জন্য Facebook প্রফেশনাল মোড বৈশিষ্ট্য চালু করবে।

পেজের পরিবর্তে কেনো প্রফেশনাল মোড চালাবো?

ধরুন ,আপনি একজন গায়ক এবং আপনার একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট আছে। আপনি আপনার প্রোফাইলে আপডেট শেয়ার করতে পারেন, কিন্তু একই আপডেট আবার আপনার ফেসবুক পেজে শেয়ার করতে হবে। অর্থাৎ একই পোস্ট দুইবার করতে হবে। আবার, যদি আপনার বন্ধুরা আপনার পৃষ্ঠা অনুসরণ করে, তারা একই পোস্ট দুইবার দেখতে পাবে।

সেক্ষেত্রে, আপনি যদি ফেসবুক পেজের প্রফেশনাল মোড ব্যবহার করেন, তাহলে একই ছাদের নিচে আপনি আপনার বন্ধুদের সাথে যোগাযোগের পাশাপাশি ভক্তদের সাথে আপডেট শেয়ার করতে পারবেন।

বটম লাইন হল মেটা বা ফেসবুক কন্টেন্ট তৈরিতে সবাইকে আগ্রহী করতে এই উদ্যোগ নিয়েছে। আর প্রফেশনাল প্রোফাইল মোড ব্যবহার করলে আলাদা পেজ পরিচালনার ঝামেলা থেকেও মুক্তি মিলবে।

Facebook টিকটকের মতো শক্তিশালী নির্মাতা সম্প্রদায় রয়েছে এমন প্ল্যাটফর্মগুলির থেকে অনেক পিছিয়ে রয়েছে৷ 3 বিলিয়নেরও বেশি ডাউনলোড এবং Facebook এর চেয়ে বেশি ব্যস্ততার সাথে, Tiktok বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়া শিল্পে আকর্ষণ অর্জন করছে। আর ফেসবুক তাদের শ্রমের মূল্য দিয়ে নির্মাতাদের আকৃষ্ট করার চেষ্টা করছে।

তো আজ এই পর্যন্তই।
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url